অজিদের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে ইংল্যান্ড

শিরোনাম ডেস্ক

বার্মিংহামে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২২৪ রানের টার্গেট নিয়ে খেলতে নেমে দাপুটে জয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড। এর আগে টসে জিতে ৪৯ ওভারে সব উইকেটে হারিয়ে ২২৩ রান সংগ্রহ করে অজিরা।

বৃহস্পতিবার (জুলাই ১১) বার্মিংহামের এজবাস্টনে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় শেষ চারের ম্যাচে মুখোমুখি হয় স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। যেখানে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক অ্যার ফিঞ্চ।

প্রথমে ব্যাট করা অস্ট্রেলিয়া ৪৯ ওভারে গুটিয়ে যাওয়ার আগে ২২৩ রান করতে পারে। জবাবে ১০৭ বল বাকি থাকতে মাত্র ২ উইকেট হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ইংলিশরা।

২২৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করেন দুই ইংল্যান্ড ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো। মাত্র ১৭.২ ওভারেই তারা ১২৪ রান তুলে জয়কে সহজ করে দেন। বেয়ারস্টো ব্যক্তিগত ৩৪ করে মিচেল স্টার্কের শিকার হন। ৪৩ বলে ৫টি চারে নিজের ইনিংস সাজান তিনি।

এ উইকেটের মাধ্যমে অবশ্য ব্যক্তিগত এই কীর্তি গড়ে ফেলেন স্টার্ক। স্বদেশী গ্লেন ম্যাকগ্রাকে ছাড়িয়ে এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের বিশ্বরেকর্ড গড়েন তিনি। তার উইকেট সংখ্যা ২৭টি।

বেয়ারস্টোর বিদায়ের পর বিধ্বংসী রয় খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। সেঞ্চুরি বঞ্চিত এই ডানহাতি ৬৫ বলে ৮৫ রানের ঝড়ো এক ইনিংস খেলে প্যাট কামিন্সের শিকার হন। তিনি ৯টি চার ও ৫টি ছক্কা হাঁকান।

জয়ের জন্য বাকি পথটুকু দেখেশুনে লড়ে যান জো রুট (৪৯) ও অধিনায়ক মরগান (৪৫)। অপরাজিত থেকেই তারা মাঠ ছাড়েন।

এর আগে প্রথম ইনিংসে শুরু থেকে ইংল্যান্ডের বিধ্বংসী বোলিংয়ে দলীয় মাত্র ১০ রানে দুই ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নাকে হারায় অস্ট্রেলিয়া। এরপর সপ্তম ওভারেই দলীয় ১৪ রানে পিটার হ্যান্ডনসকম্বকে আউট করেন ইংলিশ বোলার ওকস। ফলে ইনিংসের শুরুতেই চাপে পড়ে অস্ট্রেলিয়া।

এরপর দলীয় ১১৭ রানে ব্যক্তিগত ৪৬ রান করে অ্যালেক্স ক্যারি, দলীয় ১১৮ রানে মার্কাস স্টোইনিস, দলীয় ১৫৭ রানে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও ৩৭ ওভার শেষে দলীয় ১৬৬ রানে প্যাট কামিন্স আউট হন।

সবশেষ ইংল্যান্ডের হয়ে জজ বার্টলারের থ্রোতে সর্বোচ্চ ৮৫ রান করে স্টিভেন স্মিথ রান আউট হলে রানের ইনিংসটা আর বড় করতে পারেনি অজিরা। অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ তখন ৪৭ ওভার শেষে ৮ উইকেটে ২১৭। পরের দুই ওভারে দ্রুত ২ উইকেট হারিয়ে ৪৯ ওভার শেষে ২২৩ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া।

অপরদিকে ৮ ওভার বল করে ২০ রান দিয়ে ক্রিস ওকস এবং ১০ ওভারে ৫৪ রান দিয়ে আদিল রশিদ ৩টি করে উইকেট তুলে নেন। এছাড়া দলের হয়ে জোফেরা আর্চার ১০ ওভার বল করে ৩২ রান দিয়ে ২ উেইকেট ও মার্ক উড ৯ ওভারে ৪৫ রান দিয়ে ১টি উইকেট পান।

প্রসঙ্গত, এনিয়ে চতুর্থবারের মতো ফাইনালে জায়গা করে নিল ইংল্যান্ড। এর আগে ১৯৭৯, ১৯৮৭ ও ১৯৯২ আসরে রানার্সআপ হয়েছিল ক্রিকেটের জনকরা। আর টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনাল খেলবে নিউজিল্যান্ড। ফলে এবারে নতুন চ্যাম্পিয়ন পাবে ক্রিকেট বিশ্ব।

আইআই/শিরোনাম বিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: