আশুলিয়ায় বিস্ফোরণে দগ্ধ: ঝুঁকিপূর্ণ বাড়ি সিলগালা

উপজেলা প্রতিবেদক

ঢাকার সাভারে গ্যাসের আগুন থেকে বিস্ফোরণ ও ছয় জন দগ্ধ হওয়ার ঘটনায় ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষনা করে বাড়িটি সিলগালা করেছে ফায়ার সার্ভিস। একই সাথে তিতাস গ্যাস কতৃপক্ষ বাড়িটির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে।

বুধবার ভোর ৫টায় বিস্ফোরণের ঘটনার পর সকাল ১১টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এসময় তারা বাড়িটির দেয়ালে বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দেয়ায় সাময়িক ভাবে পরিত্যক্ত ঘোষনা করেন।

একই সময় সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর পক্ষ থেকেও ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বাড়িটির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

ফায়ার সার্ভিসের চার নম্বর জোনের কমান্ডার আব্দুল আলীম বলেন, ‘বিস্ফোরণের কারণে বাড়িটির তিনটি কক্ষের সব গুলোর দেয়ালেই ফাটল দেখা দিয়েছে। এতে বাড়িটি পুরোপুরি বসবাসের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। তাই সিনটেপ দিয়ে আমরা সাময়িক ভাবে বাড়িটি সিলাগালা করে দিয়েছি।’

সাভার আঞ্চলিক তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর উপ-ব্যবস্থাপক আব্দুল মান্নান বলেন, বাড়িটিতে বিস্ফোরণের ঘটনার পরপর আমাদের পক্ষ থেকে পরিদর্শন করা হয়েছে। দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে টয়লেটের বায়োগ্যাস থেকে দুর্ঘটনার কথা তাদের জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। তারপরও আমরা নিরাপত্তার জন্য বাড়িটির গ্যাস সংযোগ আপাতত বিচ্ছিন্ন করেছি। পরবর্তীতে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের নির্দেশে সংযোগ প্রদান করা হবে বলে জানান তিনি।

তবে এ বিষয়ে বাড়ির মালিক হুমায়ন কবিরকে পাওয়া না গেলেও তার মেয়ে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু তিনি তার পরিচয় জানাতে অপারগতা প্রকাশ করে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।
প্রস্ঙগত বুধবার ভোর ৫টার দিকে আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ কবরস্থান রোড এলাকায় হুমায়ন কবিরের বাড়িতে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে একই পরিবারের শিশুসহ তিনজন, পাশের কক্ষের আরেক দম্পতি ও এক নারীসহ ছয় জন দগ্ধ হন। পরে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: