ওবামার সঙ্গে জেদের কারণেই ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি বাতিল!

শিরোনাম ডেস্ক

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ওপর ডোনাল্ড ট্রাম্পের ব্যক্তিগত ক্ষোভের কারণেই ইরানের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি বাতিল। এ ক্ষোভের কারণেই ট্রাম্প ছয়জাতি পরমাণু চুক্তি হতে আমিরিকাকে বের করে নেন। খবর বিবিসি।

তবে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে তাকে নিষেধ করেছিল ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাজ্য। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত স্যার কিম ড্যারচের ফাঁস হওয়া এক ইমেইল থেকে এ তথ্য জানা গেছে। কিন্তু ট্রাম্প তার নিজের সিদ্ধান্তে অটল থাকেন।

২০১৮ সালে তৎকালীন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন এক স্মারকলিপিতে যুক্তরাষ্ট্রকে পারমাণবিক চুক্তি থেকে বের না হতে আহবান জানিয়েছিলেন।

ওই চুক্তি মোতাবেক, অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের শর্তে পারমাণবিক মজুদ সীমিতকরণে রাজি হয়েছিল ইরান। তবে ট্রাম্পের কাছে ওই চুক্তি যথাযথ মনে হয়নি।

রাষ্ট্রদূত স্যার কিম ড্যারচ তার ইমেইলে জানান, বরিস জনসন যুক্তরাষ্ট্র থেকে যুক্তরাজ্যে ফেরার পর জানিয়েছিলেন, ইরানের সঙ্গে হওয়া পারমাণবিক চুক্তি থেকে বের হয়ে আসার ঘোষণা দিতে পারেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর কারণ চুক্তিটি তার পূর্বসূরি বারাক ওবামার সময়ে হয়েছে। সাবেক প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার ব্যক্তিত্বের দ্বন্দ্বেই এ চুক্তি বাতিল হতে যাচ্ছে।

এ সিদ্ধান্ত নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টাদের মধ্যে বিভক্তি সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া চুক্তি বাতিলের জন্য হোয়াইট হাউসের সুনির্দিষ্ট কোনো কর্মপরিকল্পনা নেই বলেও জানান ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত।

পাশাপাশি ট্রাম্প প্রশাসনের এ ধরনের কর্মকাণ্ডকে ‘কূটনৈতিক ধ্বংসযজ্ঞ’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সম্প্রতি রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ গোপন নথি ফাঁস করার বিষয়ে গণমাধ্যমগুলোকে সতর্ক করেছে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। পাশাপাশি কোনো সাংবাদিক এ বিষয়ে আর কোনো তথ্য প্রকাশ করলে তার বিরুদ্ধে আইনিব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হুশিয়ারি দিয়েছে ব্রিটিশ পুলিশ। এসব ঘটনার তদন্ত শুরু করছে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড।

শিরোনাম বিডি/এআইএস

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: