করোনামুক্ত ভাষা মতিনের চোখে দেখা রেশমা, দিতে চান প্লাজমা

ঢাকার ধামরাইয়ে করোনাভাইরাসমুক্ত হয়েছেন হয়েছেন ভাষা সৈনিক আব্দুল মতিনের চোখের কর্নিয়া ব্যবহার করে দেখতে পারা রেশমা নাসরিন। বর্তমানে তিনি শারীরিকভাবে সুস্থ রয়েছেন।

বুধবার (১৫ জুলাই) মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি এ তথ্য জানান। গত ১১ জুলাই তিনি দ্বিতীয়বারের মত নমুনা জমা দেন। পরে ১৪ জুলাই রাতে তার করোনা নেগেটিভ ফলাফল আসে। এরপর আজ তিনি ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পান।

এর আগে, জ্বর ও শরীর ব্যথার উপসর্গ দেখা দিলে তিনি গত ২০ জুন নমুনা জমা দেন। পরে ২৪ জুন পরীক্ষার ফলাফল করোনা পজিটিভ আসে। এরপর পরিবারের বাকি সদস্যদের নমুনা জমা দেয়া হলেও তাদের ফলাফল করোনা নেগেটিভ আসে।

রেশমা নাসরিন বলেন, ‘দুই সপ্তাহ আগে হঠাৎ করে জ্বর ও শরীর ব্যথা শুরু হলে করোনা পরীক্ষায় নমুনা জমা দেই। পরে ২৪ তারিখ করোনা পজিটিভ আসে। এরপর থেকে আইসোলেশনে ছিলাম। তবে পজিটিভ আসার পর থেকে সুস্থই আছি। ৪ দিন পরেই আমি করোনা উপসর্গ মুক্ত হই। কিন্তু পরিবারের বাকীদের সুরক্ষিত রাখতে ২১ দিন আইসোলেশন পালন করেছি।’

তিনি বলেন, ‘নিজে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর পরিবারের বাকি সদস্যদের নমুনা পরীক্ষা করানো হয়। সর্বপ্রথম আমার ১৮ মাসের বাচ্চার নমুনা দেই। তবে সে সহ বাকি সবার করোনা নেগেটিভ ফলাফল আসে। পরে ১১ জুলাই আবার নমুনা জমা দেই। ১৪ তারিখ রাতে আমি করোনা নেগেটিভ ফলাফল পাই। আজ বুধবার ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেছি।’

রেশমা নাসরিন বলেন, আমি নিজে একজন স্বাস্থ্যকর্মী। করোনাকালীন সময়ে কাজ করতে গিয়ে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলাম। এরপর সুস্থ্য হয়েছি। এখন আবার কাজ শুরু করব। এছাড়া কারো প্রয়োজন হলে আমি আমার বি+(পজিটিভ) প্লাজমাও দিতে চাই।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে ভাষা সৈনিক আব্দুল মতিন মারা যাওয়ার পর তার কর্নিয়া ঢাকার ধামরাইয়ের একটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্যকর্মী রেশমা নাসরিনের চোখে প্রতিস্থাপন করা হয়।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: