গ্রিসের সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত তুরস্ক

পূর্ব ভূমধ্যসাগরে সমুদ্রসীমা নিয়ে বিতর্কের মীমাংসা করতে গ্রিসের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত তুরস্ক।

ইস্তাম্বুলে শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জুমার নামাজ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইপ এরদোগান। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য দিয়েছে আল জাজিরা।

গ্রিস ও সাইপ্রাসের পানিসীমার কাছে বিতর্কিত এলাকায় তেল-গ্যাসের অনুসন্ধান চালাচ্ছে তুরস্ক। তাতে দুই ন্যাটো প্রতিবেশীর মধ্যে যুদ্ধের মতো পরিবেশ তৈরি হয়েছে। কৌশলগত এই সমুদ্রসীমায় দুই দেশ বিমান ও নৌমহড়া দিচ্ছে।

আন্তর্জাতিক মহলকেও নাড়া দিয়েছে দুই দেশের পাল্টাপাল্টি অবস্থান। তবে কারও হস্তক্ষেপে নয়, আলোচনার মধ্যে এই সমস্যা মিটবে বলে আশা এরদোগানের। তিনি বলেছেন, ‘গ্রিক প্রধানমন্ত্রী (কাইরিয়াকোস) মিতসোতাকিসের সঙ্গে কী একটা বৈঠক হতে পারে? এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হতে পারে আমাদের আলোচনা।‘

গ্রিসকে আমন্ত্রণ জানিয়ে এরদোগান আরও বলেছেন, ‘সদিচ্ছা থাকলে আমরা আলোচনায় বসতে পারি। সেটা হতে পারে ভিডিও কনফারেন্সে কিংবা তৃতীয় কোনও দেশে।’ বৃহস্পতিবার ভিডিও কনফারেন্স করে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেলকে এরদোগান বলেন, সংলাপের মাধ্যমে চলমান দ্বন্দ্বের মীমাংসা হতে পারে তবে এর ভিত্তি হতে হবে স্বচ্ছতা। এ সময় তিনি জোর দিয়ে বলেন, তুরস্ক তার অধিকারের প্রশ্নে চূড়ান্ত ও সক্রিয় নীতি বাস্তবায়ন করবে।

গ্রিসের সঙ্গে এরদোগান আলোচনায় বসার প্রস্তাব দেওয়ার পর গ্রিক রাষ্ট্রদূত মাইকেল ক্রিসটোসকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তলব করেছে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু। ডিমোক্রেটিয়া নামের গ্রিক সংবাদপত্রে তুর্কি প্রেসিডেন্টের একটি ছবি ছেপে তার পাশে অশ্রাব্য ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে। তাই এ তলব।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: