চাঁদাবাজিতে বাঁধা দেওয়ায় পুলিশের উপর হামলা, গ্রেফতার ৩

উপজেলা প্রতিবেদক

সাভারের আশুলিয়ায় পার্কিং এর নামে পরিবহণে চাঁদাবাজিতে বাঁধা দেওয়ায় পুলিশকে ঘিরে ফেলে হামলা ও পরিবহনে চাঁদাবাজির অভিযোগে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের নিকট হতে চাঁদাবাজির ৪ হাজার ২ শত ৫০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (৪ জুন) সকাল ১০ টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) হারুন-অর-রশিদ।

এরআগে, বৃহষ্পতিবার (৩ জুন) আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পরে এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

আটকরা হলো- আশুলিয়ার কাইচাবাড়ী কালার টেক এলাকার ইদ্রিস আলীর ছেলে মামুন (৪০), টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর থানার দরিহাতি গ্রামের শামসের মিয়ার ছেলে রাজ্জাক মিয়া (৩৮) ও সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানার কান্দাপাড়া গ্রামের নুরুল হোসেনের ছেলে আলমগীর হোসেন (৩০)।

পলাতক আসামিরা হলো- আশুলিয়ার বাইপাইল পূর্বপাড়া (মন্ডলপাড়া) এলাকার মৃত মীর আলী মন্ডলের ছেলে বাদশা মন্ডল (৪২), বাইপাইলের স্বপনের বাড়ির ভাড়াটিয়া মেহেদী (৪০), টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর থানার জলছত্র গ্রামের হৃদয় (৩৫), আশুলিয়ার ইউনিক এলাকার সেলিম (৩৫), জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ থানার সুজন (৩২) ও আশুলিয়ার গাজিরচট এলাকার আনোয়ার হোসেন (৩৫)। তারা সবাই বাদশা মন্ডলের অধীনে পরিবহনে চাঁদাবাজি করে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে কিছু চাঁদাবাজ পার্কিং এর নামে বিভিন্ন পরিবহন থেকে ১০০ টাকা করে চাঁদা আদায় করছে। যার ফলে যান চলাচল বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে তাৎক্ষনিক এলাকায় যানজট নিরসনে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তা হারুন-অর-রশিদ ও আসাদুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে চাঁদাবাজদের বাধা প্রদান এবং যান চলাচল স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেন। পরে ২০ থেকে ৩০ জন চাঁদাবাজ চারদিকে থেকে পুলিশকে ঘিরে ফেলে আক্রমণ করে। পরে থানায় খবর দিলে অতিরিক্ত পুলিশ অফিসার ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে আসলে আসামিরা পালিয়ে যায়। এ সময় ৩ জনকে আটক করা হয়। তাদের নিকট হতে চাঁদাবাজির ৪ হাজার ২ শত ৫০ টাকা উদ্ধার করে জব্দ করা হয়

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন-অর-রশিদ বলেন, এই চাঁদাবাজ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে বাদশা মন্ডলের নেতৃত্বে বাস, ট্রাক ও পিকআপ থেকে ১০০ টাকা করে চাঁদা আদায় করে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে গতরাতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই সাথে পলাতক আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!