চাঁদা না দেওয়ায় মারধর ও মোটরসাইকেল ভাংচুর, আটক ১

উপজেলা প্রতিবেদক, ধামরাই

ঢাকার ধামরাইয়ে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মাটি ভরাটের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে চাঁদা না পেয়ে ওই প্রতিষ্টানের কর্মীকে মারধর ও মোটরসাইকেল ভাংচুরের অভিযোগের ঘটনায় মোঃ জুলহাস নামে এক অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার ললিতনগর বাথুলী এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

এর আগে সোমবার (১৬ মার্চ) রাত সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার ললিতনগর বাথুলী এলাকায় এ কে এইচ নিটিং এন্ড ডাইং লিঃ এ এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মালিক মোঃ ইমরুল হোসেন সোমবার ধামরাই থানায় ১২ জন ও অজ্ঞাত আরো ৫/৭ জনকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

আটককৃত মোঃ জুলহাস উপজেলা ললিতনগর বাথুলীর বাসিন্দা মজিবুর খা’র ছেলে।

পুলিশ ও অভিযোগ সূত্রে জানায় যায়, ধামরাই উপজেলার ললিতনগর বাথুলী এলাকায় এ কে এইচ নিটিং এন্ড ডাইং লিঃ গ্রুপের বালি ভরাটের কাজ পায় স্থানীয় একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক মোঃ ইমরুল হোসেন (৩৫)। কাজ পাওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে এসে ইমরুল এবং তার কাজে নিয়জিত লোকজনের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করত অভিযোক্ত আসামীরা। টাকা না দিলে মারধর এবং প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দিত। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে ইমরুলের কর্মী শামছুল হক (৩৭) এ কে এইচ নিটিং এন্ড ডাইং লিঃ কোম্পানিতে বালি ভরাটের কাজ করার সময় অভিযোক্ত আসামীরা লোহার রড, ও বিভিন্ন অস্রহাতে এসে শামছুল হককে হত্যার উদ্দেশ্যে এলো পাথারি আঘাত করে ও তার পকেটে থাকা ২৫০০০ হাজার টাকা নিয়ে নেয়। চিৎকার শুনে ইমরুল হোসেন ঘটনা স্থানে গেলে আসামীরা তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় এবং চারটি মটরসাইকেল ভাংচুর করে চলে যায়।

আসামিরা হলেন, ১) মোঃ শরীফুল ইসলাম মাছুম (৩০) পিতা মোঃ মোসলেম, ২) মোঃ সোহাগ (২৯) পিতা আজাহার আলী, ৩) মোঃ ইসরাফিল (২৯) পিতা মোঃ ওমর আলী, ৪) মজিবুর রহমান (৫০) পিতা মৃত আব্দুল খা, ৫) আবুল হোসেন(৬০) পিতা মৃত আব্দুল হাই, ৬) দেলোয়ার হোসেন (৩২) পিতা অজ্ঞাত, ৭) মোঃ শফিকুল ইসলাম (৩৫) পিতা ছাবেদ আলী, ৮) মোঃ জুলহাস (২৮) পিতা মজিবুর খা, ৯) রাজু মিয়া (৩০) পিতা আব্দুল রহমান, ১০) বাচ্চু মিয়া (২৭) পিতা- সাখাওয়াত, ১১) সুজন মিয়া (২৯) পিতা- আজহার আলী, ১২) আমিনুর (২৫) পিতা- অজ্ঞাত।

এ ব্যাপারে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ রফিকুল ইসলাম লিটন বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে মো: জুলহাস নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকি আসামিদেরও আটকের চেষ্টা চলছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: