দলে বসন্তের কোকিলের দরকার নাই: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগে বসন্তের কোকিলদের না এনে বিভিন্ন কমিটিতে ত‌্যাগীদের জায়গা করে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

পটুয়াখালীতে জেলা আওয়ামী লীগে সম্মেলনে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বসন্তের কোকিল দলে টেনে ত্যাগী নেতাকর্মীদের কোনঠাসা করে দল ভারি করার দরকার নাই। বিলবোর্ডে ছবি ও শ্লোগান দিয়ে, পোষ্টার লাগিয়ে নেতা হওয়া যায়না। কর্মীরা ঠিক আছে, সব গোলমালের উৎস হচ্ছে এই মঞ্চ। নেতারা ঘরের মধ্যে ঘর করে, মশারির মধ্যে মশারি ও আত্মীয়করণ করে চৌদ্দ পুরুষকে নিয়ে পকেট কমিটি করে! পকেট কমিটি চলবেনা, কমিটি করতে গিয়ে খারাপ মানুষদের দলে টানা যাবেনা। অনেক ত্যাগীরা কমিটিতে জায়গা পায়নি, তাদের জায়গা করে দিতে হবে।

কর্মীদের কোনঠাসা করে আওয়ামী লীগ বাঁচবেনা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনাকে বারবার ক্ষমতায় আনতে হবে। বিগত ৪৪ বছরে বাঙালী জাতির ইতিহাসে সাহসী রাজনীতি ও সফল নারী নেত্রীত্বের অধিকারী বঙ্গুবন্ধ কন্যা শেখ হাসিনা। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়ে রাখুন। দেশের সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদদের বিরুদ্ধে রুক্ষে দাড়াতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করুন। ‘

এর আগে শহরের শহীদ আলাউদ্দিন শিশুপার্কে বেলুন, শান্তির পায়রা উড়িয়ে আর জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করেন পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আলহাজ্ব আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পটুয়াখালী-১ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অ‌্যাডভোকেট মো. আফজাল হোসেন, উপদপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনু প্রমুখ।

র্দীঘ ২৭ বছর পরে বদল হলো পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব এবারের সম্মেলনের মধ‌্য দিয়ে। বিকাল তিনটার পরে দ্বিতীয় অধিবেশনে পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলমগীরকে সভাপতি এবং যুগ্ম সম্পাদক ভিপি আব্দুল মান্নানকে সম্পাদকের পদে ঘোষণা দেন ওবায়দুল কাদের। এছাড়াও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরোয়ারকে এক নম্বর যুগ্ম সম্পাদক ও বাউফল উপজেলা পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলকে দুই নম্বর যুগ্ম সম্পাদক করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৯২ সাল থেকে পটুয়াখালী জেলা আওয়মী লীগের দায়িত্ব পালন করছেন পটুয়াখালী এক আসনের সাংসদ আলহাজ্ব অ‌্যাড. শাহজাহান মিয়া।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
%d bloggers like this: