ধামরাইয়ে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

উপজেলা প্রতিবেদক

ঢাকার ধামরাইয়ে আলোচিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সাবেক সেনা সদস্য নাজমুল ইসলাম পান্নুকে হত্যাকান্ডের ঘটনায় দীর্ঘ নয় বছর পালিয়ে থাকা ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুর রশিদকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এঘটনায় মামলার অন্যান্য আসামিরা জেলহাজতে রয়েছেন।

বুধবার (২৬ মে) ভোরে তাকে ধামরাইয়ের চৌহাট ইউনিয়নের চৌহাট গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

গ্রেফতার আব্দুর রশিদ ধামরাইয়ের চৌহাট ইউনিয়নের মৃত আবদুল হামিদের ছেলে। তিনি হত্যাকান্ডের পর ২০১২ সাল থেকে পলাতক ছিলেন। তবে তাকে ফাঁসির দন্ডাদেশ দেওয়া হয় ২০১৪ সালে।

পুলিশ জানায়, ধামরাই উপজেলার চৌহাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সহিংসতায় ২০১২ সালের ৬ মার্চ সাবেক সেনা সদস্য নাজমুল ইসলাম পান্নু হত্যাকান্ডের শিকার হয়। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী হাসু বেগম বাদী হয়ে ১৫জনের নামে ধামরাই থানায় মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ১৫ জনের নামে অভিযোগপত্র দেয়া হলে ২০১৪ সালে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪ বিচারিক আদালত আব্দুর রশিদকে ফাঁসি ও ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মোকছেদ, বিপ্লব, মনির, বিপ্লব, রাজন, আসাদ, ও গ্রামপুলিশ সিদ্দিকুর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন। অন্যান্য আসামিদের খালাস দেওয়া হয়েছে।
এ ঘটনায় আব্দুর রশিদ, বিপ্লব ও রাজন পলাতক থাকলে তাদের মধ্যে ফাঁসির আসামি রশিদকে গ্রেফতার করা হয়। বাকি দুই জন এখনও পলাতক রয়েছে।

এ বিষয়ে ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিক রহমান জানান, মামলায় ফাঁসির ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের আসামিসহ মোট তিন জন পলাতক ছিলো। তাদের মধ্যে ফাঁসির আসামিকে গ্রেফতার করে আজ দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!