ভাঙ্গনের পথে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া!

ভাঙ্গনের সুর দেখা দিয়েছে বর্তমান সরকারবিরোধী জোট জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ায়। দূরত্ব বাড়ছে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও বিকল্পধারার সভাপতি অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর মধ্যে। এরই মধ্যে বেশ কয়েকবার বাতিল হয়েছে ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক। তবে দ্বন্দের সবচেয়ে বড় প্রমাণ মিলেছে শনিবার বিকেলেই।

RELATED NEWS
ফের বাতিল জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক
ঐক্যের অভিন্ন লক্ষ্য ও দাবির খসড়া চূড়ান্ত, ঘোষণা শিগগিরই
এদিন বি চৌধুরীসহ অন্য নেতাদের নিজের বেইলি রোডের বাসায় ডেকেছিলেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন। আমন্ত্রণ পেয়ে বিকাল সাড়ে তিনটায় ড. কামালের বাসায় গিয়েছিলেন বি. চৌধুরীরা। কিন্তু সেখানে গিয়ে কাউকে পাননি তারা। বরং সদর দরজায় তালা ঝুলতে দেখে কিছুক্ষণ অপেক্ষার পর ফিরে যেতে বাধ্য হন তারা।

বিষয়টিকে রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত ও নজিরবিহীন বলে মন্তব্য করে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় স্পষ্ট হয়ে গেল, কারা সত্যিকার অর্থে জাতীয় ঐক্য চান না।’

বি. চৌধুরীর প্রেস সচিব জাহাঙ্গীর আলম জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বারিধারার ১২ নম্বর রোড, ১৯ নম্বর বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করবেন বি. চৌধুরী।

জানা যায়, বি. চৌধুরী যখন ফিরে যান তখন ড. কামাল নিজ চেম্বারে ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতাদের নিয়ে বৈঠক করছিলেন। সন্ধ্যা ৬টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানাবেন তিনি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর বেইলি রোডে ড. কামাল হোসেনের বাসায় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও তা বাতিল হয়ে যায়। ওই দিন রাতে আ স ম রবের বাসায় বৈঠকের কথা হয়, তবে পরে তাও বাতিল হয়।

ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতাদের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের পক্ষ থেকে যেভাবে ৭ দাবি ও ১১ লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে, তাতে বাধ সেধেছেন বিকল্পধারার সভাপতি বি. চৌধুরী। গতকাল শুক্রবারের বৈঠকে দলটির যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরীও আপত্তি তোলেন। ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতারা বলছেন, নির্বাচন সন্নিকটে। হাতে সময় খুব কম। এ পরিস্থিতি চলতে থাকলে শেষ পর্যন্ত বিকল্প ধারাকে বাদ রেখেই হয়তো ঐক্য করতে হবে।

ঐক্য প্রক্রিয়ার বিভিন্ন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ শনিবার দুপুরের আগ পর্যন্ত দলগুলোর প্রত্যাশা ছিল, দাবি-লক্ষ্য চূড়ান্তকরণ আর আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে কর্মসূচি নির্ধারণ হতে পারে বিকালের বৈঠকে। কথা ছিল বি. চৌধুরী ও কামাল হোসেন আগে বসবেন এবং পরে ৫টার দিকে ঐক্যের নেতারা সবাই মিলে বসে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করে গণমাধ্যমে ঘোষণা দেবেন। তবে এই দুই নেতা বৈঠকে বসলেও বৃহত্তর ঐক্যের বৈঠকটি বাতিল করায় খুব সম্ভবত এমনটি আর ঘটছে না বলে মনে করছেন ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত অনেক নেতা।

তাদের মতে, বিকল্পধারাকে বাদ দিয়েই শেষ পর্যন্ত কামাল হোসেন, আ স ম রব ও মাহমুদুর রহমান মান্নাকে নিয়েই বিএনপির সঙ্গে বৃহত্তর ঐক্যের ঘোষণা আসতে পারে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!