যেমন আছে খর্বাকৃতির গরু রানী

নিজস্ব প্রতিবেদক

কিছু দিন আগেই দেশের পর বিশ্ব মিডিয়াতেও সাড়া ফেলেছে খর্বাকৃতির গরু রানী। গিনেস বুকে সবচেয়ে ছোট গরু হিসেবে স্বীকৃতি পেতে যাওয়া সাভারের রানীকে নিয়ে তখন তোলপাড়। প্রতিদিন শত শত মানুষ রানীকে দেখতে ভীড় জমিয়েছে খামারটিতে। রানীর সাথে একটি ছবি ফ্রেমবন্দী করতে রীতিমত চলেছে প্রতিযোগিতা। তবে মাস পেরিয়ে ছোট গরুর রেকর্ড গড়তে যাওয়া সেই রানীর এখন অলস সময়। খামার কতৃপক্ষ জানিয়েছেন, গিনেস বুক কতৃপক্ষের সাথে মেইলের মাধ্যমে তাদের যোগাযোগ হচ্ছে। চাহিদা মতো তথ্য-উপাত্ত সরবরাহ করা হয়েছে। গিনেস বুকে রানীর স্বীকৃতি পেতে এখন সর্বোচ্চ দেড় মাসের অপেক্ষা।

তবে আশুলিয়ার কুরগাঁও শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে স্টাফদের অসুস্থতাজনিত কারণে সেখানে প্রবেশ একেবারেই বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানান। তবে তারা রানীর ছবি ও তথ্য সরবরাহ করেন।

শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী মো. আবু সুফিয়ান বলেন, ‘গিনেস বুক ওয়ার্ল্ডে আমরা অ্যাপ্লিকেশন পাঠিয়েছি। ওরা ফারদার তিন সপ্তাহের মধ্যে অ্যাবিডেন্স চেয়ে রিপ্লাই দিয়েছিলো। ওদের একটা প্রেসক্রাইব ফরম্যাট আছে। ফরম্যাটে বলা হয়েছে, এখানে যত গুলো লোকাল মিডিয়ায় নিউজ কাভার হইছে সে গুলোর লিংক চাওয়া হয়েছে। তারপর লোকাল যে ডাক্তার তার একটা ইন্টারভিউ। প্লাস ওই লোকাল ডাক্তার যে একজন সত্যিই ডাক্তার এটার সার্টিফিকেট এবং উইটনেস সহ কিছু স্বাক্ষী চেয়েছিলো। সে গুলা আমরা পাঠানোর পর তারা এক্সেপ্ট করে বলছে, সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ আমাদের ব্যাপারে চূড়ান্তটা জানাবে। এটা সর্বোচ্চ দেড় মাস।’

তিনি আরও বলেন, ‘গিনেস বুক ওয়ার্ল্ডে অন্তর্ভুক্ত হতে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় আমাদের সার্বিক সহযোগিতা করছেন। এ জন্য শীর্ষস্থানীয় কিছু ব্যক্তিবর্গ আমাদের সাহায্য করছেন।’

কেমন আছে রানী এ বিষয়ে বলেন, ‘রানীকে নিয়ে দেশের সব মিডিয়া সংবাদ প্রচারের পর বিশ্ব মিডিয়াতেও এসেছে। রানী বলতে গেলে সেলিব্রেটি হয়ে গেছে। গতকালকেও ডাক্তার ভিজিট করেছে। ডাক্তারের ভাষ্য অনুযায়ী, রানী সুস্থ আছে। তবে বেশিরভাগ সময় রানীকে এখন ভিতরেই রাখা হয়। ডিপ্লোমেটিক কারণে আমরা তাকে সেভাবে ছেড়ে দিই না। এতে সেলিব্রেটি রানীর কিছুটা মন খারাপ থাকে আমরা বুঝতে পারি।’

খামারে দর্শনার্থীদের প্রবেশাধিকারের বিষয়ে বলেন, ‘আমরা সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতি আস্থাশীল। যখন থেকেই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে তখন থেকেই আমরা দর্শনার্থী প্রবেশ টোট্যালি নিষিদ্ধ করছি। কেবল সাংবাদিকরা অ্যাপয়েনমেন্ট নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে ভিজিট করতে পারবেন।’

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে শিকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড খামারে ২০ ইঞ্চি উচ্চতার খর্বাকৃতির গরু রানীর সংবাদ মিডিয়ায় প্রচার হয়। তখন খামার কতৃপক্ষ জানায়, ভুট্টি জাতের গরু রানির দৈর্ঘ্য ২৬ ইঞ্চি এবং ওজন ২৬ কেজি। ১১ মাস আগে নওগাঁর প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে রানিকে আনা হয় এই খামারে। এরপর থেকেই লালন-পালন করছেন তারা।

গিনেস বুকে খর্বাকৃতির গরু হিসেবে বর্তমানে যে গরুটি আছে সেটির উচ্চতা ২৪.৭ ইঞ্চি। ২০১৪ সালের ২১ জুন খর্বাকৃতির গরু হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া ভারতের কেরালা রাজ্যে মানিকিয়াম জাতের গরুটির ওজন ৪০ কেজি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!