যেসব শর্তে চালু হচ্ছে গণপরিবহন

নিজস্ব প্রতিবেদক

শর্ত সাপেক্ষে সরকার গণপরিবহনে চলাচলের অনুমোদন দিয়েছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মঙ্গলবার বিকেলে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে একথা জানিয়েছেন।
বুধবার সকাল ৬টা থেকে এটা শুরু হয়ে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের সব সিটি করপোরেশন এলাকায় গণপরিবহন সেবা চালু থাকবে। তবে শহরের বাইরের কোনো পরিবহন শহরে প্রবেশ করতে পারবে না এবং বের হতে পারবে না।

ঢাকা, চট্টগ্রাম মহানগরসহ গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন এলাকার সড়কে সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত অর্ধেক আসন খালি রেখে গণপরিবহন চলাচল করবে।

প্রতি ট্রিপের শুরু এবং শেষে জীবাণুনাশক দিয়ে গাড়ি জীবাণুমুক্ত এবং পরিবহন সংশ্লিষ্ট ও যাত্রীদের বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। কোনোভাবেই সমন্বয় করা ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা যাবে না। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত দূরপাল্লায় গণপরিবহন চলাচল যথারীতি বন্ধ থাকবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার প্রেক্ষাপটে সরকার গণপরিবহণের ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট কিছু সিদ্ধান্ত দেয়।পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে পালনে ১৮ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়।

গণপরিবহন চলাচলে অর্ধেক আসন খালি রেখে চালানোর কথা বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে ক্ষতি পোষাতে ভাড়া বাড়িয়ে ৬০ শতাংশ করে দেওয়া হয়েছে।

গত ৪ এপিল ওবায়দুল কাদের সারা দেশে ৫ এপ্রিল থেকে ১২ এপ্রিল এক সপ্তাহ গণপরিবহন বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন। পরে সরকার এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এক সপ্তাহের কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানার নির্দেশনা জারি করে।

কেআরআর

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: