শিশু সামিয়া হত্যা : হারুনের মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর ওয়ারীতে শিশু সামিয়া আফরিন সায়মাকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় একমাত্র আসামি হারুন অর রশিদের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (০৯ মার্চ) দুপুরে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক কাজী আবদুল হান্নান এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আসামি হারুন অর রশিদকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সামিয়ার বাবা আবদুস সালাম, মা সানজিদা আক্তার। তাদের আশা, উচ্চ আদালতে এ রায় বহাল থাকবে এবং আসামির দ্রুত ফাঁসি কার্যকর হবে।

রাষ্ট্রপক্ষে স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল বারী বলেন, ‘৬ বছরের একটা শিশুকে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় আসামি আদালতে দোষ স্বীকার করেছেন। রাষ্ট্রপক্ষ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। আদালত আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন। রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।’

আসামিপক্ষের আইনজীবী আনোয়ার উল্যা বলেন, ‘আমরা ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছি। এ রায়ের বিরুদ্ধে আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো। আশা করছি, সেখানে আমরা ন্যায়বিচার পাবো। ‘

গত ৫ মার্চ রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন‌্য আজকের দিন ধার্য করেন আদালত।

উল্লেখ্য, শিশু সামিয়াকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তার বাবা আব্দুস সালাম গত বছর ৬ জুলাই ওয়ারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। ৭ জুলাই কুমিল্লার ডাবরডাঙা এলাকা থেকে হারুনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন হারুন।

গত বছর ৩০ অক্টোবর হারুনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ওয়ারী জোনাল টিম (নিরস্ত্র) মো. আরজুন। গত ২ জানুয়ারি মামলার হারুনের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন একই ট্রাইব্যুনাল

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: