শ্রীলঙ্কা সফরে আগ্রহী নন ক্রিকেটাররা

করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতি এবং অনুশীলনের পর্যাপ্ত সুযোগ না থাকায় জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে যেতে আগ্রহী নন ক্রিকেটাররা। সোমবার জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের নিয়ে টেলিকনফারেন্সে বসেছিলেন বিসিবির পরিচালক ও পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান।

সেখানে উপস্থিত থাকা ক্রিকেটাররা শ্রীলঙ্কায় যেতে অনাগ্রহ প্রকাশ করেছেন। নিশ্চিত করেছেন আকরাম খান। মঙ্গলবার সকালে মুঠোফোনে তিনি রাইজিংবিডিকে বলেছেন,‘আমরা বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছিলাম। তারা কেউই বর্তমান পরিস্থিতিতে শ্রীলঙ্কা যেতে চাচ্ছে না। আমাদের থেকেও তাদের সিদ্ধান্তটা গুরুত্বপূর্ণ। মাঠে তারা খেলবে, তারা সফর করবে। এজন্য তাদের ইচ্ছাকে আমরা গুরুত্ব দেব।’

জানা গেছে, টেস্ট দলপতি মুমিনুল হক সহ টেলিকনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিনটি ম্যাচ খেলতে শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। জুলাই-আগস্টে তিনটি ম্যাচ হওয়ার কথা কলম্বো, গল ও ক্যান্ডিতে। দ্বীপরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় তারা চাইছে সিরিজটি যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হোক। বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতকেও শ্রীলঙ্কা আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। বিসিসিআইয়ের খেলোয়াড় পাঠানোর ইচ্ছে থাকলেও সরকার থেকে অনুমতি না পাওয়ায় ভারতও শ্রীলঙ্কা সফর বাতিল করেছে।

বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেই। আক্রান্তের সূচক ঊর্ধ্বমুখী। মৃত্যুর তালিকা লম্বা হচ্ছে। এ মুহূর্তে আন্তর্জাতিক ভ্রমণেও রয়েছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি। সব মিলিয়ে ক্রিকেটারদেরও ইচ্ছে নেই এ মুহূর্তে শ্রীলঙ্কা সফরের। পাশাপাশি তারা এটাও জানিয়েছে, ম্যাচ ফিটনেস পেতে অন্তত এক মাসের ট্রেনিং লাগবে।

আকরাম খান বলেছেন,‘কোনো প্রস্তুতি ছাড়া আমরা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচগুলি খেলতে পারি না। দীর্ঘদিন ধরে আমাদের ক্রিকেট বন্ধ। ক্রিকেটাররাই বলেছে ওদের অন্তত একমাস সময় লাগবে। পাশাপাশি ফিটনেস ক্যাম্প করতে হবে। বিষয় গুলি এতোটাও সহজ নয়। এজন্য তাদেরকে সময় দিতে হবে। আমরা আমাদের পরিকল্পনা মতো এগিয়ে যাবো। বাকিটা আমরা দুই বোর্ড মিলিয়ে ঠিক করবো।’

জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক জানান, চলতি সপ্তাহেই দুই বোর্ড আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবে। এদিকে বাংলাদেশ সফর হচ্ছে না ধরে নিয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড এসএলপিএল বা শ্রীলঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ আয়োজনের পরিকল্পনা করছে।

ব্যক্তিগত ট্রেনিংয়ের জন্য আরও কিছুদিন অপেক্ষা করবে বিসিবি। তবে বিসিবির একসূত্র বলছে, ২৫ জুন থেকে ক্রিকেটাররা ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করতে পারেন মিরপুর হোব অব ক্রিকেটে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: