সাভারের বিভিন্ন সড়কে মুসুল্লিদের প্রতিবাদী বিক্ষোভ

উপজেলা প্রতিবেদক

  • ফ্রান্সে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সঃ) এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশ করার প্রতিবাদে রাজধানীর প্রবেশমুখের সড়ক গুলোতে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন দুই লক্ষাধিক মুসুল্লি। এতে প্রায় এক ঘন্টা যানচলাচল বন্ধ থাকে।

শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে ঢাকা-আরিচা, নবীনগর-চন্দ্রা ও টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কে অবস্থান নেয় দুই লক্ষাধিক মুসুল্লি।

জানা যায়, জুম্মার নামাজের পরপর বিভিন্ন মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান নেয় মুসুল্লিরা। মহাসড়কের সাভার বাসস্ট্যান্ড এলাকা জনাকীর্ণ হয়ে ওঠে। এসময় ফ্রান্স সরকার প্রধানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ফেস্টুন ও প্ল্যাকার্ড নিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন বিক্ষোভকারীরা।

একই সময় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের নবীনগর, বাইপাইল ও জিরানী এলাকায় প্রতিবাদী স্লোগান নিয়ে অবস্থান নেয় লাখো মুসুল্লি। এসময় তারা ফ্রান্স সরকারের ছবি সম্বলিত ফেস্টুনে আগুন জ্বালিয়ে প্রতিবাদ জানায়। পরে সড়কে বসে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন তারা।

এসময় তারা বলেন, ইসলাম ধর্মের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী হজরত মুহাম্মদ (সঃ) কে নিয়ে এধরণের নিকৃষ্ট কর্মকান্ড কোন ভাবেই মেনে নেয়া যাবে না। আমরা শরীরের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে এর প্রতিবাদ করব। এটা পুরো মুসলিম জাহানের উপর আঘাত। এর জন্য ফ্রান্স সরকারকে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের সামনে ক্ষমা চাইতে হবে। তারা দাবি করেন, বাংলাদেশে অবস্থিত ফ্রান্সের দূতাবাস সরিয়ে ফেলতে হবে। তাদের সাথে সমস্ত কূটনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে। এছাড়া ফ্রান্সের সকল ধরণের পণ্য বয়কটে সকলের প্রতি আহ্বান জানান তারা। দাবি মানা না হলে আরো কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলেও হুশিয়ারী দেন মুফতি-মুসুল্লিরা।

এছাড়া টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের আশুলিয়া, জামগড়া ও নরসিংহপুর এলাকায় মুসুল্লিরা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন।

এতে ঢাকা-আরিচা, নবীনগর-চন্দ্রা ও টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কে প্রায় এক ঘন্টা যানচলাচল বন্ধ থাকে। রাজধানী ঢাকায় প্রবেশ ও বহির্গমণ পথে এসময় শত শত যান গুলোকে দাড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। পরে বিকেল ৩ টার দিকে মুসুল্লিরা সড়ক থেকে সরে গেলে আবারো যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

ঢাকা জেলা উত্তর ট্রাফিক পুলিশের ইন্সপেক্টর (প্রশাসন) আব্দুস সালাম জানান, আজ জুম্মার নামাজ শেষে মুসুল্লিরা সাভারের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করেছেন। এতে রাজধানীতে প্রবেশ ও বহির্গমন পথ বন্ধ থাকায় যানচলাচল বন্ধ থাকে। প্রায় আধঘন্টা পর সড়ক থেকে মুসুল্লিরা চলে গেলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: