সাভারে বিয়ার-ট্যাপেন্টাডল মাদকসহ আটক ৫

উপজেলা প্রতিবেদক

সাভারে পৃথক দুই অভিযান চালিয়ে ৪৩২ ক্যান বেলজিয়ান বিয়ার ও ৩১৬ পিস ট্যাপেন্টাডলসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব-৪ এর ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমির উদ্দীন আহমেদ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে আশুলিয়ার গনকবাড়ী এলাকার হাসান অ্যাপার্টমেন্টের নিচ তলায় জিয়া ড্রাগ হাউস-২ থেকে ৩ জন ও সাভারের হারুরিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব মাদকদ্রব্যসহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়।

ট্যাপেন্টাডলসহ গ্রেফতাররা হলেন, নাইম ইসলাম (২১), সে নড়াইল জেলার কালিয়া থানার পিরুলি গ্রামের মুরাদ শেখের ছেলে। আবু বক্কর (২১), সে ব্রাহ্মনবাড়ীয়া জেলার নবীনগর থানার সাতমেরা গ্রামের আজিজ মিয়ার ছেলে। নূর নবী (২২), সে কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারি থানার বন্দবেড গ্রামের মোবারক হোসেনের ছেলে। আটক ৩ জনই জিয়া ড্রাগ হাউজ-২ এর কর্মচারী।

অপরদিকে বিয়ার ক্যানসহ গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মকবুল আহমেদ ওরফে মুকুল (২৪), সে সাভারের হারুরিয়া এলাকার আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে। হাফিজুর রহমান (২৬), সে গোপালগঞ্জ জেলার কোটালিপাড়া থানার নারায়নখানা গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে। তারা উভয়ে সিংগাইর নিউ মার্কেট সাজেদা ফাউন্ডেশনের তৃতীয় তলায় ভাড়া থাকতো।

র‌্যাব জানায়, আশুলিয়ায় জিয়া ড্রাগ হাউজ-২ এ অভিযান চালিয়ে ৩১৬ (তিনশত ষোল) পিস অবৈধ মাদকদ্রব্য ট্যাপেন্টাডলসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা তিন জনই ড্রাগ হাউজ-২ এর কর্মচারী। এর আগেও ওই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বিক্রয় নিষিদ্ধ ওষুধ জব্দ করেছিল র‌্যাব।

এছাড়া গোপন খবরের ভিত্তিতে সাভারের হারুরিয়া এলাকায় আবু বক্কর সিদ্দিকের টিনের ঘরের মধ্যে অভিযান চালিয়ে ৪৩২ ক্যান বেলজিয়ান বিয়ারক্যানসহ দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়।

এবিষয়ে র‌্যাব-৪ এর ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমির উদ্দীন আহমেদ বলেন, আটককৃতরা বিভিন্ন এলাকা থেকে মাদক সংগ্রহ করে আশুলিয়া ও সাভারে বিক্রি করতো বলে স্বীকার করেছে।

এবিষয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: