সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ার প্রাদুর্ভাবে যুক্তরাষ্ট্র-কানাডায় উদ্বেগ

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়া, যার প্রাদুর্ভাব হচ্ছে পেঁয়াজের মাধ্যমে। যুক্তরাষ্ট্রের ৪৩ রাজ্যে এই ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪০ জন। তাদের মধ্যে অন্তত ৮৫ জনকে হাসপাতালে যেতে হয়েছে বলে মার্কিন গণমাধ্যমকে জানিয়েছে রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি)।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে পেঁয়াজ নিয়ে দেশবাসীকে সতর্ক করেছে সিডিসি, ‘আপনি যদি না জানেন পেঁয়াজ কোথায় থেকে এসেছে, তাহলে খাবেন না, পরিবেশন করবেন না কিংবা বিক্রি করবেন না অথবা তা দিয়ে খাবার বানাবেন না।’

থমসন ইন্টারন্যাশনাল ইনক কোম্পানির পেঁয়াজ না খাওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করেছে খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন। লাল, সাদা, হলুদ ও মিষ্টি পেঁয়াজের ক্ষেত্রে এই পরামর্শ দিয়েছে তারা।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কানাডার ২৩৯ জন। দেশটির জনস্বাস্থ্য সংস্থাও দেশবাসীকে সতর্ক করে বিবৃতি দিয়েছে, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও থমসন ইন্টারন্যাশনাল ইনক থেকে আসা কোনও ধরনের লাল, সাদা, হলুদ ও মিষ্টি হলুদ পেঁয়াজ খাবেন না এবং তা সরবরাহ কিংবা বিক্রিও করবেন না। আর এসব পেঁয়াজ দিয়ে তৈরি খাবারও তৈরি করবেন না।’

এ বছরের জুনের মাঝামাঝি থেকে জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত এ ব্যাকটেরিয়ায় বেশি মানুষ অসুস্থ হয়েছেন। কানাডায় ২৯ জনকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে। অবশ্য মৃত্যুর খবর এখনও পাওয়া যায়নি।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, সালমোনেলায় আক্রান্তের লক্ষণ হলো ব্যাকটেরিয়া শরীরে প্রবেশের ছয় থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ডায়রিয়া, জ্বর ও পেটব্যাথা শুরু হয়। পাঁচ বছরের নিচের শিশু ও ৬৫’র বেশি বয়স্কদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকায় অসুস্থতা গুরুতর হতে পারে। এই লক্ষণগুলো দেখা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে সিডিসি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: