সিংগাইরে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীর বহরে এমপি সমর্থকদের হামলা

জনশক্তি রিপোর্ট : মানিকগঞ্জের সিংগাইরে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী গোলাম মনির হোসেনের মোটরসাইকেল বহরে হামলার অভিযোগ উঠেছে সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার জামসা ইউনিয়নের সারারিয়া এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা কমপক্ষে ১০টি মোটর সাইকের ভাংচুর করেছে এবং বেশ কয়েকটি মোটর সাইকেল পুকুরে ফেলে দিয়েছে। এই হামলায় কমপক্ষে ২০জন কর্মী আহত হয়েছে।

গোলাম মনির হোসেন বলেন, বেলা ৩টার দিকে তিনি মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার হাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গন থেকে পাঁচ শতাধিক মোটর সাইকেলের বহর নিয়ে সিঙ্গাইর উপজেলা সদরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। মোটর সাইকেলের বহরটি সিঙ্গাইর উপজেলার জামসা ইউনিয়নের সারায়িয়া এলাকায় পৌছলে সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের সমর্থকরা ধারালো অস্ত্র ও লাঠি-সোটা নিয়ে হামলা করে। এতে তার ২০ জন কর্মী আহত হয় এবং ১০টি মোটর সাইকের ভাংচুর করে। এই হামলার নেতৃত্ব দেন জামসা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন এবং তার সহযোগি জনি, রবিন, তোফাজ্জল।

পরে তিনি মোটর সাইকেলের বহর নিয়ে নিজ এলাকায় ফিরে আসেন।

তিনি বলেন, দূর্গাপূজার মন্ডপ পরিদর্শন এবং পূজারীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করতেই তিনি তার কর্মী সমর্থকদের নিয়ে মোটর সাইকেলযোগে বের হয়েছিলেন। তার উদ্দেশ্য ছিল আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রচারণা এবং সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ। তিনি পূজা মন্ডপে কিছু আর্থিক সহযোগিতা করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের সমর্থকদের হামলার মুখে তিনি তার প্রচারণা বন্ধ করে নিজ এলাকায় ফিরে যান।

এই হামলার প্রতিবাদে হাটিপাড়া এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশ হযেছে। হাটিপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মফিজ উদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এস এম আলমগীর হোসেন, হাটিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসন সিদ্দিকী হাসেম মাষ্টার, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মফিজ উদ্দিন মফেল, হাটিপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আক্কাস আলী, হরিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা লুৎফর রহামান রুন প্রমুখ। তারা এই হামলার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন এবং অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেফতার করার দাবী করেন।

সিঙ্গাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মতিয়ার রহমান হামলার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তিনি গোলাম মনির হোসেনকে বেশি সংখ্যক মোটর সাইকেলযোগে বের হতে নিষেধ করেছিলেন। এই ধরণের প্রচরাণার কোন অনুমতি নেই। এর জন্য তিনিই দায়ী।

উল্লেখ্য, গোলাম মনির হোসেন জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য। তিনি পরপর দুই বার হাটিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি এবার মানিকগঞ্জ-২ আসনে সংসদ সদস্য পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।

তবে, দেশের বাইরে থাকায় সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে, দলীয় সূত্রে জানা গেছে, এই হামলার সাথে মমতাজ বেগমের কোন সমর্থক জড়িত নয়। গোলাম মনিরের নিজেদের কোন্দলের কারণেই এই হামলা হয়েছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!