স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

শিরোনাম ডেস্ক

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত নরওয়ের রাষ্ট্রদূত এসপেন রিকটার ভেন্ডসেন।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) সংসদ ভবনে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন নরওয়ের রাষ্ট্রদূত।

করোনাকালীন বাংলাদেশের খাদ্য নিরাপত্তা, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে বাংলাদেশের আইন, কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিনের বর্তমান অবস্থা, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নয়ন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

স্পিকার বলেন, নরওয়ে বাংলাদেশের অনেক পুরোনো বন্ধু এবং নরওয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অত্যন্ত সুদৃঢ়। এ সময় ভবিষ্যতে দুদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুরদর্শী নেতৃত্বের কারণে করোনা সংটের মধ্যেও সর্বস্তরের মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। তৃণমূল পর্যায়ে দরিদ্র জনগণ যেন অনাহারে না মরে সেজন্য সঠিক সময়ে খাদ্যদ্রব্য সরবরাহ করেছে সরকার। সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণের কারণে কোভিডকালীন বাংলাদেশের জীবনযাত্রা ও ব্যবসা-বাণিজ্য বর্তমানে স্বাভাবিক গতিতে চলছে। করোনায় বাংলাদেশে মৃত্যুহার তুলনামূলক কম। বর্তমান সরকার সবার জন্য কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন সরবরাহে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

শিরীন শারমিন বলেন, সংসদ সদস্য ও সংশ্লিষ্ট সবার কোভিড পরীক্ষা করে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরই মধ্যে নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধে প্রয়োজনীয় আইনের সংশোধন হয়েছে। বাংলাদেশের এগিয়ে যাবার এসব প্রচেষ্টায় নরওয়ে সরকার সর্বদা পাশে থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন স্পিকার।

নরওয়ের রাষ্ট্রদূত বলেন, কোভিডকালীন বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখার প্রচেষ্টা হিসেবে সরকারের গৃহীত কার্যক্রম প্রশংসার দাবি রাখে। নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে বাংলাদেশের প্রচলিত আইনের প্রশংসা করেন এসপেন রিকটার ভেন্ডসেন।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: