হার্ডকো ইন্টারন্যাশনালের টিউশন ফি’তে ছাড়ের দাবি

করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানবন্ধকালীন সময়ে হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের টিউশন ফি শতকরা ৫০ ভাগ ছাড় দেয়ার দাবি জানিয়েছেন অভিভাবকরা।

মঙ্গলবার (১৬ জুন) রাজধানীর বসুন্ধরায় হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের সামনে সামনে সামাজিক দুরত্ব মেনে করা এক সমাবেশে এ দাবি জানান অভিভাবকরা।

তারা বলেন, করোনাকালীন দেশের অভিভাবকরা আর্থিক টানাপড়েনে পড়েছেন। সব বিদ্যালয়ের টিউশন ফিও অনেক বেশি। ৫০ শতাংশ টিউশন ফি নিলেও তাদের শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন দিতে পারবেন, কোনো সমস্যা হবে না।

অভিভাবকরা বলেন, অভিভাবকদের সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে বাসার কাজের লোক, ড্রাইভারসহ অনেককে দুর্দিনে সহায়তা দিয়ে যেতে হচ্ছে। আমরা ৫০ শতাংশ টিউশন ফি ওয়েভারের সুবিধা ফুলটাইমের জন্য ফুল অ্যামাউন্ট চাইছি না। করোনার সময়ের জন্যই শুধু চাইছি।

তারা বলেন, এতদিন ইংরেজি মাধ্যম স্কুলগুলো ভালো ব্যবসা করেছে। এখন দুর্যোগকালে তারা ৫০ শতাংশ ছাড় দিলে কোনো সমস্যাই হওয়ার কথা নয়।

অভিভাবকরা জানান, হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষার্থীদের এ লেভেল টিউশন ফি বাবদ মাসে প্রায় ১৭ হাজার টাকা এবং ও লেভেল থেকে জুনিয়র ক্লাসগুলোয় প্রতি মাসে ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকা দিতে হয়। নার্সারি স্তরের শিক্ষার্থীদের স্কুলে টিউশন ফি দিতে হয় ১২ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা।

এসময় তারা অবিলম্বে অভিভাবকদের এ দাবি মেনে নিতে হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: