১৪ ফেব্রুয়ারি: স্বৈরাচার প্রতিরোধ দিবস

নিজস্ব প্রতিনিধি

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জী মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, মঙ্গলবার। ০২ ফাল্গুন, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৮৫৫- টেক্সাস বাকি যুক্তরাষ্ট্রের সাথে টেলিগ্রাফের মাধ্যমে যুক্ত হয়।
১৮৫৯- অরেগন যুক্তরাষ্ট্রের ৩৩তম অঙ্গরাজ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায়।
১৯১২- অ্যারিজোনা যুক্তরাষ্ট্রের ৪৮তম অঙ্গরাজ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায়।
১৯৪৬- ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড জাতীয়করণ করা হয়।

জন্ম
১৪৮৩- বাবর, প্রথম মুঘল সম্রাট (মৃত্যু ১৫৩০)
১৯৩৩- মধুবালা, ভারতীয় অভিনেত্রী ও গায়িকা (মৃত্যু ১৯৬৯)
১৯৪৪- সন্তু লারমা, বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের আদিবাসীদের নেতা।

মৃত্যু
১৭৭৯- জেমস কুক, ইংরেজ নাবিক।
১৯৪৩- ডেভিড হিলবার্ট, জার্মান গণিতবিদ।
১৯৮৩- ছাত্রনেতা জাফর, জয়নাল, দীপালি সাহা শহীদ হন।
ছাত্রনেতা ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, ‘‘১৪ ফেব্রুয়ারি আমরা শুধু জয়নালের মরদেহ পাই। দিপালী সাহার মরদেহ গুম করে ফেলে। তার মরদেহ আমরা পাইনি। ১৫ ফেব্রুয়ারি কাঞ্চন চট্টগ্রাম শহরে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আরও অনেকে নিখোঁজ হন। তাদের জীবিত বা মৃত কোনো অবস্থায়ই পাওয়া যায়নি। ভালোবাসা দিবসে এ রকম একটা হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল, তা এ প্রজন্মকে স্মরণ করাতে আমরা ব্যর্থ হয়েছি। এ দায় স্বীকার করে নিতে আমার আপত্তি নেই।’’

১৯৮৩ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি নিয়ে বলছিলেন তখনকার ছাত্রনেতা মুশতাক। তৎকালীন এরশাদ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী মজিদ খানের শিক্ষানীতি বাতিলের দাবির আন্দোলনে জাফর, জয়নাল, দীপালি সাহা শহীদ হন। তারপর থেকে তাদের স্মরণে দিনটি পালিত হয়ে আসছে।

শিরোনামবিডি/বাবলু ইসলাম

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: