৩০ অক্টোবর মেয়াদ উত্তীর্ন হবে লেবানন বিএনপির কমিটি, আহবায়ক কমিটি নিয়ে চলছে কানাঘুষা

জনশক্তি রিপোর্ট : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি লেবানন শাখার বর্তমান কার্যপরিচালনা কমিটির মেয়াদকাল শেষ হতে চলেছে আগামী ৩০ অক্টোবর। এনিয়ে দলে চলছে আলোচনা সমালোচনা, আগামীতে নতুন কমিটির সুবাতাস বৈছে লেবানন বিএনপিতে। গত ২০১৬ সালের ৩০ আক্টোবর কাউন্সিলারদের ভোটের মাধ্যমে ২ বৎসরের জন্য নির্বাচিত হয় সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক।

লেবানন বিএনপির নীতিনির্ধারকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, লেবানন বিএনপি তার সাংগঠনিক নিয়মে প্রতি দুই বছরের জন্য কমিটি কমিটি দেয়া হয়। কমিটির দুই বছর পুরণ হলে একটি সভা ডেকে দলের দায়িত্ব উপদেষ্টা পরিষদের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়। আর সেই সভাতেই একটি আহবায়ক কমিটি করে দেয়া হয়, যে কমিটির দায়িত্ব শুধু মাত্র একটি কাউন্সিল করে নতুন কমিটি করে দেয়া। ওই আহবায়ক কমিটির মেয়াদকাল হয় ৩মাস।

আরো জানা যায়, আহবায়ক কমিটির কোন সদস্য কোন পদের জন্য প্রার্থীতা করতে পারবেনা এবং কোন প্রার্থীর পক্ষও নিতে পারবেনা। নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করে একটি কমিটি উপহার দেয়া তাদের মূল দায়িত্ব।

বর্তমান কমিটি ক্ষমতা হস্তান্তর সম্পর্কে লেবানন বিএনপির সভাপতি মফিজুল ইসলাম বাবু স্পষ্ট বলে দিয়েছেন যে, সময় শেষ হবার আগেই তাদের দায়িত্ব উপদেষ্টা পরিষদের কাছে বুঝিয়ে দেবেন। একি কথা বলেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জাকির ও সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিবও। যদিও তাদের কমিটির মেয়াদ কাল এমাসের ৩০ তারিখে শেষ হয়ে যাবে। তবে ঠিক কবে তারা উপদেষ্টা পরিষদের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবে সে বিষয়ে এখনো জানা যায়নি।

দলের বর্তমান পরিস্থিতিতে বেশ গুরুত্ব পাচ্ছে আহবায়ক কমিটি নিয়ে, কে হতে পারে সেই নিরপেক্ষ আহবায় কমিটির প্রধান দলের ভেতর সে বিষয়ে চলছে কানাঘুষা। এরিমধ্যে মাঠে ৪ জনের নাম চলে এসেছে।

প্রথম: আহবায়ক হিসেবে লেবানন বিএনপির নীতিনির্ধারক, বর্তমান উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য রুহুল আমীনের নাম শুনা যাচ্ছে। রুহুল আমীন বিগত দিতে ৩বার নিষ্ঠার সাথে এই প্রধান আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন বলে জানা যায়।

দ্বিতীয়: আমীর হোসেন কলিম, তিনিও দলের নীতিনির্ধারক ও লেবানন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। তিনি ইতিপূর্বে একবার যুগ্ন আহবায়কের দায়িত্ পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি লেবানন বিএনপির প্রধান উপদেষ্টা।
তৃতীয়: দলের আরেক নীতিনির্ধারক আব্দুল হালিম, তিনি লেবানন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক।

চতুর্থ: মানিক মোল্লা, তিনি সাবেক সভাপতি ছিলেন, বর্তমানে তিনি দলের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য।

এখন দেখার অপেক্ষা কার উপর নেস্ত হতে পারে লেবানন বিএনপির এই ৩ মাসের গুরুত্বপূর্ণ কমিটি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!