আদালতের পরোয়ানার ভিত্তিতে মইনুলকে গ্রেফতার: আইনমন্ত্রী

জনশক্তি রিপোর্ট : আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন টকশোতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে যা বলেছেন তাতে শুধু তার মানহানি হয়েছে তা নয়। এতে বাংলাদেশের নারী সমাজ মনে করে তার ঔদ্ধত্যপূর্ণ কথাটি পুরো নারী সমাজকে অপমানিত করেছে।

তিনি বলেন, এই মামলা করার পর আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী কোন পদক্ষেপ না নিলে নারী সমাজ ক্ষুব্ধ হতো। সে জন্যই আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানার ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে এক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য শেষে বেরিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন। উন্নয়নে রোল মডেল বাংলাদেশ: বতর্মান সরকারের মূল্যায়ন (২০০৯-২০১৮)” শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের সংগঠন রাষ্ট্রবিজ্ঞান সমিতি”(রাস)।

আইনমন্ত্রী বলেন, আজকের এই অনুষ্ঠানটি রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অনুষ্ঠান। এখানে রাষ্ট্র নিয়ে সত্য কথা বলতে হয়। প্রধানমন্ত্রীকে কাছ থেকে দেখেছি। তিনি সারাক্ষণ দেশকে নিয়ে চিন্তা করেন। কী করলে? কিভাবে দেশের উন্নয়ন হবে? সারাক্ষণ তিনি এ কথা চিন্তা করেন। তিনি ২০০৯ সাল থেকে এই পর্যন্ত যত উন্নয়নমূলক ও মানব কল্যাণমূলক কাজ করেছেন তার পুরস্কার যদি দেওয়া হয় তাহলে এ বিশ্ব গরিব হয়ে যাবে।

সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, উন্নয়নের ক্ষেত্রে যোগাযোগ একটি বড় শক্তি। বর্তমান সরকার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিকে দেশের মানুষের জন্য উম্মুক্ত করে এ উন্নয়নকে তরান্বিত করছেন। এ উন্নয়নকে অব্যাহত রাখতে পারলে বাংলাদেশ হবে উন্নয়নের রোল মডেল।

সেমিনারে গত এক দশকে বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নের একটি তুলনামূক পরিসংখ্যান তুলে ধরেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্ণর ড. আতিউর রহমান। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ২০০৮ সালে দিন বদলের বাংলাদেশ ইশতিহার দিয়ে ব্যতিক্রম উন্নয়ন চিন্তার এক দশক অতিক্রম করেছে। সামাজিক পিরামিডের পাটাতনে থাকা মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন সূচিত হয়েছে এই এক দশকে।

বাংলাদেশর এই উন্নয়নকে ভবিষ্যতে অব্যাহত রাখতে কতিপয় চ্যালঞ্জের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিজেদের সংস্কৃতিকে ধরে রেখে প্রযুক্তির ব্যবহারে এগিয়ে যেতে হবে। নতুন নতুন কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ইনোভেটিভ ল্যাব তৈরি করতে হবে।

রাষ্ট্রবিজ্ঞান সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. গিয়াসউদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, সাবেক তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. খুরশিদা বেগম প্রমুখ।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!