আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের
ঐক্যফ্রন্টের সাত দফার এক দফাও মানা হবে না

জনশক্তি রিপোর্ট : জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সব দফাকে ভিত্তিহীন ও অযৌক্তিক দাবি করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তাদের সাত দফার এক দফাও মানা হবে না। শুক্রবার রাজধানীর উত্তরা দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেল প্রকল্প পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঐক্যফ্রন্টের সব দাবি অযৌক্তিক। সাত দফার এক দফাও মানা হবে না। নির্বাচনের সময় সরকার তার এজেন্ডাগুলো বাস্তবায়ন করবে। বিশ্বের অন্য দেশে যেভাবে থাকে আমাদের দেশেও একইভাবে সরকার থাকবে। সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এত বড় ঐক্যফ্রন্ট! কয়টা লোক হল? বড় বড় বাঘা বাঘা নেতারা সেখানে গেলেন বোমা ফাটাতে, জনগণের সাড়া কি মিলেছে? কোনোদিন মিলবে না। বাংলাদেশের ইতিহাস বলে, আন্দোলনে যারা বিজয়ী হতে পারে না, নির্বাচনেও তারা বিজয়ী হতে পারে না।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, নিরপেক্ষ সরকারের দরকার কী? নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন তো আছে। নির্বাচন যখন হবে, তখন নির্বাচন হবে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের আন্ডারে। এ নির্বাচন কমিশন পুরোপুরি নিরপেক্ষ।

‘আর পরিবর্তনের সময় কই, মহামান্য রাষ্ট্রপতি সার্চ কমিটি গঠন করে এ নির্বাচন কমিশন গঠন করেছে। এখানে বিএনপির লোকও তো আছে’, যোগ করেন তিনি।

ইসিতে মতভেদের বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, এটি কি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ যে পাঁচজন সর্বসম্মত না দিলে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে না? এখানে পাঁচজনের মেজরিটি যা বলে, তাই সিদ্ধান্ত। এটি বিভক্তি নয়।

বিএনপি নিষ্ক্রিয় ‘সংস্কারপন্থী’দের সক্রিয় করার যে উদ্যোগ নিয়েছে, তাতে তাদের দেউলিয়াত্বের প্রকাশ ঘটেছে বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি কতটা দেউলিয়া যে এখন আবার তাদের নেয়া হয়েছে। দলের লোকজনকে সংস্কারপন্থী বলে কোণঠাসা করে রেখেছিল বিএনপি। এখন এই লোকেরা এসে আন্দোলনে শক্তি জোগাবে, বিশ্বাস করা কঠিন। তা ছাড়া ফখরুল সাহেব নিজেও সংস্কারবাদী ছিলেন।

কৃষক, শ্রমিক, জনতা লীগের আবদুল কাদের সিদ্দিকী সাত দফা সমর্থনের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, করুক, আরও বাড়ুক তারা। নেতায় নেতায় ঐক্য হোক, তাতে জনসমর্থন পাবে না।

মেট্রোরেল নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, মেট্রোরেল এখন দৃশ্যমান। এটি প্রধানমন্ত্রীর মেগাপ্রকল্প। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেলের প্রথম ফেজের কাজ শেষ হবে। দ্বিতীয় ফেজ আগারগাঁও থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক পর্যন্ত ২০২০ সালের ডিসেম্বরে শেষ হবে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!