ঘোষণার পরপরই ঢাকায় ইচ্ছেমতো বাস ভাড়া আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর গুলিস্তান থেকে ফার্মগেট পর্যন্ত আগে ১০ টাকা ভাড়া নিলেও এখন ১৫ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। পরিবহন ধর্মঘট তুলে নেওয়ার পর আজ রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীতে বাস চালু হলে আগের চেয়ে ৫০ শতাংশ বাড়তি ভাড়া আদায় করতে দেখা গেছে। যদিও আজ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) সঙ্গে পরিবহন মালিক সমিতির বৈঠকে মহানগরে ২৬ দশমিক ৫ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। আজ বিকেল পাঁচটার দিকে বাসভাড়া বাড়ানোর এ সিদ্ধান্ত হয়।

বিআরটিএর সঙ্গে বৈঠকের পর চলমান পরিবহন ধর্মঘট তুলে নেয় পরিবহন মালিক সমিতি। এরপর সন্ধ্যায় রাজধানীতে বাস চলতে শুরু করে। তারা নতুন নির্ধারিত ভাড়া আদায় করছে। কোনো কোনো পরিবহন নতুন নির্ধারিত ভাড়ার চেয়েও বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। মহানগরে ২৬ দশমিক ৫ শতাংশ বাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হলেও ৫০ শতাংশ বাড়তি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।

এয়ারপোর্ট-বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ পরিবহন লিমিটেড গুলিস্তান থেকে ফার্মগেট পর্যন্ত ১৫ টাকা করে ভাড়া নিচ্ছে। এই পরিবহনের একটি বাসের যাত্রী মো. আবুল হোসেন ও মো. আলম ঢালি। তাঁরা প্রথম আলোকে জানান, গুলিস্তান থেকে ফার্মগেটে আমাদের কাছ থেকে আজকে ১৫ টাকা করে ভাড়া নিয়েছে। আগে গুলিস্তান-ফার্মগেট ১০ টাকা ভাড়া নিত।’

বাসটির চালকের সহকারী মো. সাব্বির হোসেন বলেন, ‘গুলিস্তান থেকে ফার্মগেটের ভাড়া ১০ টাকার জায়গায় ১৫ টাকা নিতেছি। আমাদের এই ভাড়া নিতে বলছে বইলাই নিচ্ছি। কাল ভাড়ার চার্ট টাঙানো অইব।’

বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ পরিবহনের বাসই আবার গুলিস্তান থেকে আবদুল্লাহপুর পর্যন্ত ৫০ শতাংশের বেশি ভাড়া আদায় করছে। এই পরিবহানের একটি বাসের যাত্রী মো. শাহাবুদ্দিন বলেন, ‘আমি গুলিস্তান থেকে আবদুল্লাহপুর যাচ্ছি। গুলিস্তান-আবদুল্লাহপুর ভাড়া ছিল ৩৫ টাকা, এখন নিচ্ছে ৫৫ টাকা।’

ক্ষোভ প্রকাশ করে শাহাবুদ্দিন বলেন, মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তের মধ্যে নীরব দুর্ভিক্ষ চলছে। যেখানেই যাবেন, খোঁজ নিলে বুঝতে পারবেন।

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম বলেন, তেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়িয়ে দিয়েছে। এটা অযৌক্তিক। লিটারে ৫ টাকা করে বাড়ালে সাধারণ মানুষের জন্য ভালো হতো। সব মিলিয়ে সাধারণ মানুষের ওপর ভয়াবহ চাপ তৈরি হয়েছে।

কেআরআর

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!