চট্টগ্রামে ওসিসহ ৬ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

জনশক্তি রিপোর্ট: চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানায় তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী নুরুল ইসলাম নুরু। তার বিরুদ্ধে রয়েছে মাদক ও অস্ত্রসহ ডজনখানেক মামলা। এলাকায় পাহাড় দখল করে বস্তি বানিয়ে ভাড়া দেয়া এবং মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান পরিচালনা করে আকবর শাহ থানা পুলিশ। নুরু পালিয়ে গেলেও অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হয় তার দেহরক্ষী আবুল কাসেম ওরফে আলমগীর। সেই নুরুর বোন রুবি বেগম মামলা দায়ের করেছেন আকবর শাহ থানার ওসিসহ ৬ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। গতকাল মহানগর স্পেশাল জজ আকবর হোসেন মৃধার আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। আদালত মামলা গ্রহণ করে ২৪ অক্টোবর শুনানির দিন ধার্য করেন।

ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় আকবর শাহ থানার ওসি জসিমউদ্দিন, উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আলাউদ্দিন ও মো. আশহাদুল ইসলাম, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সাইফুল ইসলাম ও আবু বক্কর সিদ্দিক এবং কনস্টেবল মো. নুরুল ইসলামকে আসামি করা হয়েছে।

আকবর শাহ থানার ওসি জসিমউদ্দিন জানান, থানার তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী নুরুর বিরুদ্ধে অন্তত ১৫ থেকে ২০টি মামলা রয়েছে। এলাকায় পাহাড় দখল করে সেখানে বস্তি ভাড়া দেয়া ও মাদককারবারে জড়িত থাকার অভিযোগও রয়েছে। পাহাড়ধসের জন্য তাকে দায়ী করা হয়। সম্প্রতি তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। নুরু পালিয়ে গেলেও তার প্রধান সহযোগী আবুল কাসেমকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে সে নুরুর অস্ত্র ও মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার কথা জানায়।

মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, পুলিশের মনোবল দুর্বল করতে এবং অভিযানকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে মাদককারবারিরা একত্রিত হয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করাচ্ছে। না হলে একজন নারী পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করার সাহস পাবে না। এ ছাড়া মামলার বাদী রুবি বেগম শীর্ষ সন্ত্রাসী নুরুর বোন।

মামলায় পুলিশের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট বলেও দাবি করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

জনশক্তি/এস

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: