জাবিতে ভবন থেকে পড়ে আবারো শ্রমিক আহত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সালাম বরকত হলের তিনতলা থেকে পড়ে আব্দুস সোবহান (৩৫) নামে এক শ্রমিক গুরুতর আহত হয়েছে।

রোববার (৩০ মে) বেলা এগারোটার দিকে এ দূর্ঘটনা ঘটে। দূর্ঘটনার পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে নেওয়া হয়।

তবে অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় তাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক মোক্তার হোসেন।

চিকিৎসক মোক্তার হোসেন বলেন, ‘আব্দুস সোবহান নামে এক শ্রমিক নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য এনাম মেডিকেলে রেফার করা হয়েছে।’

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কোভিড-১৯ অবস্থার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল সমূহ খোলার প্রস্তুতি হিসেবে বিশেষ প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি হল সংস্কার কাজ চলছে। এই কাজের অংশ হিসেবে শহীদ সালাম বরকত হলের সংস্কার কাজ চলছিলো। তবে কোনো ধরনের নিরাপত্তা বেস্টনী না রেখেই শ্রমিক দিয়ে কাজ করছিলো মেসার্স কালাম ট্রেডার্স নামের একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। আর তাতেই তিন তলা থেকে পড়ে যায় একজন শ্রমিক। পরবর্তীতে তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে নেওয়া হয়। অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে সাভারের এনাম মেডিকেলে স্থানান্তর করা হয়।

এ বিষয়ে শহীদ সালাম বরকত হলের প্রাধ্যক্ষ আলী আজম তালুকদার বলেন, ‘একজন শ্রমিক পড়ে আহত হয়েছে। শুনেছি তার মেরুদন্ডের দুইটা হাড় ভেঙ্গে গেছে।’

তবে নিরাপত্তা বেস্টনী ছাড়া শ্রমিকরা কেনো কাজ করছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি কড়া নির্দেশ দিয়েছি যাতে তারা এসব ব্যবহার করে। কিন্তু তারা ব্যবহার করেনা।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই ঠিকাদারটা অনেক ভালো, আমি তাকে দিয়ে অনেক কাজ করিয়েছি। আমি নিজে তাকে পছন্দ করে নিয়েছি। ঠিকাদার খুবই আন্তরিক, শ্রমিক আহত হওয়ার পর তখনি এ্যাম্বুলেন্স এনে চিকিৎসাকেন্দ্রে নিয়ে গেছে। আরো যা যা করার করেছে, আশা করি আর সমস্যা হবে না।’

শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানা যায় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান তাদেরকে কোনো ধরনের নিরাপত্তা বেস্টনীর ব্যবস্থা করেনি। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় তারা কাজ করতে বাধ্য হয়েছেন।

এদিকে ঠিকাদার মো. কালামের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (২৭ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন হল থেকে পড়ে শাহের আলী (২৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। নিরাপত্তা বেস্টনী না থাকার কারণেই এমন ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ তোলেন কর্মরত শ্রমিকরা। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো ঘটলো এমন দূর্ঘটনা।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: