দিনের বেলায় বাসায় ঢুকে অস্ত্র ঠেঁকিয়ে ডাকাতি, আটক ২

উপজেলা প্রতিবেদক

ঢাকার সাভারে দিনে-দুপুরে বাড়ির মহিলাদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বর্ণ ও নগদ টাকা লুটের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় ছুরি ও চাপাতিসহ দুই ডাকাতকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, পাঁচ জনের ডাকাত দল আগ্নেয়াস্ত্র ও দেশীয় অস্ত্রের মুখে প্রায় ৩০ ভরি স্বর্ণ ও ২ লাখ টাকা লুট করেছে।

এঘটনায় রোববার রাত ৮টার দিকে সাভার মডেল থানায় ভুক্তভোগী মোছা. শামসুন্নাহার একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে পৌর এলাকার ইমান্দিপুর মৃত নুরুল ইসলামের বাড়িতে এই দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

আটকেরা হলেন- সাভার পৌর এলাকার মধ্য ইমান্দিপুর মহল্লার মৃত মেসবাহ উদ্দিনের ছেলে মো. অপু ও জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানার ধরনজিল গ্রামের মৃত ফজলুর রহমানের ছেলে সুমন ওরফে নুর আলম।

ভুক্তভোগীর স্বজন গিয়াস উদ্দিন বলেন, আমার তিন সমন্দি ২০-২৫ বছর ধরে মালয়েশিয়া থাকে। আমি পরিবার নিয়ে সাভারের বিরুলিয়া থাকি। শ্বশুড় বাড়িতে তিন সমন্দির স্ত্রী ও আমার বৃদ্ধা শ্বাশুড়ি থাকেন। তাদের আট-নয় বছরের একজন শিশু ছেলে রয়েছে। এই সুযোগে আজ সকালে ৫-৬জনের একদল ডাকাত পিস্তল, রামদা, ছুরি, চাপাতি নিয়ে আমার শ্বশুড় বাড়িতে প্রবেশ করে। এসময় তারা বাড়ির মহিলাদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে লুটতরাজ করতে থাকে। আমার মেঝো সমন্দির স্ত্রীর প্রায় ১৭ ভরি, বড়জনের ১০ ও শ্বাশুড়ির ৩-৪ ভরি স্বর্ণ ও নগদ প্রায় ২ লাখ টাকা লুট করে ডাকাতরা। এসময় শ্বশুড়বাড়ি থেকে বিষয়টি আমাকে ফোন করে জানালে আমি কয়েকজনকে সাথে দিয়ে দ্রুত সেখানে আসি। এসময় বাকীরা দেয়াল টপকে পালিয়ে গেলেও দুইজনকে ধরে স্থানীয়রা গণধোলাই দেয়। পরে পুলিশে খবর দেয়া হলে তাদের আটক করে নিয়ে যায়।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘আটকদের কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও ডাকাতি আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। সেই সাথে পলাতকদের আটক ও লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!