পুনিতের মৃত্যুর, ভক্তদের রোষানলে চিকিৎসক

বিনোদন ডেস্ক

গত ২৯ অক্টোবর বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান কন্নড় সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা পুনিত রাজকুমার।

তার মৃত্যুর পর ১০ দিন কেটে গেলেও এখনো শোক কাটাতে পারেননি তার অনুরাগীরা। হতাশা আর মনোকষ্টে তাদের নিশানা এখন পুনিতের চিকিৎসক। অনুরাগীদের দাবি—চিকিৎসকের অবহেলা অভিনেতাকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছে।

ভারতীয় একটি সংবাদমাধ‌্যম জানিয়েছে, ভক্তদের হুমকি ও জোর প্রতিবাদের কারণে ডা. রামণের জন্য নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন করে ‘দ্য প্রাইভেট হসপিটালস অ্যান্ড নার্সিং হোমস অ্যাসোসিয়েশন’ (পিএইচএএনএ)। এরপর ওই চিকিৎসকের বাড়ির বাইরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বাম্মাইয়ের কাছে রামণের নিরাপত্তার আবেদন জানিয়েছিলেন পিএইচএএনএ-এর সভাপতি প্রসন্ন। তার ভাষায়—‘যেভাবে স্বাস্থ্য পরিষেবার উপর আঙুল তোলা হচ্ছে, তা অন্যায়। মানুষের বোঝা উচিত, মৃত্যু কারো হাতে নেই, চিকিৎসকেরও নেই।’

সেদিনের ঘটনা বর্ণনা কিরে পুনিতের চিকিৎসক রামণ বলেন—‘পুনিত জানান, তার দুর্বল লাগছে। এর আগে তার মুখ থেকে এই শব্দটা কোনো দিন শুনিনি। রক্তচাপ, নাড়ির বেগ, ফুসফুস— সব পরীক্ষা করে দেখলাম, সবই স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু পুনিতের শরীর থেকে প্রচুর ঘাম ঝরছিল। ভেবেছিলাম, বাড়তি শরীরচর্চা করার ফলে এমন হচ্ছে। তা-ও ইসিজি করার পরামর্শ দিই। তাতে কিছু গোলমাল ধরা পড়ায় তার স্ত্রীকে বিষয়টি জানাই। হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শও দিই। বেলা ১১টা নাগাদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় পুনিতকে। তার ঘণ্টা কয়েকের মধ্যেই মৃত্যু হয় পুনিতের।’

৪৬ বছর বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান পুনিত। প্রিয় তারকার মৃত্যু মেনে নিতে না পেরে প্রাণ হারিয়েছেন তার তিন ভক্ত। তাদের মধ্যে দু’জনের মৃত্যু হয় হৃদরোগে অন‌্যজন আত্মহত্যা করেন।

কেআরআর

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!