রাজধানীতে সাংবাদিককে মারধরের পর বাস থেকে ফেলে হত্যাচেষ্টা

জনশক্তি রিপোর্ট: দৈনিক প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক কমল জোহা খানকে বাস থেকে ফেলে হত্যাচেষ্টা করেছে রাজধানীতে চলাচলকারী নিউভিশন বাস। এ ঘটনায় বাসের হেলপার ও ড্রাইভারকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পল্টন মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক।

পরিবহন শ্রমিকদের আক্রমণের শিকার সাংবাদিক কমল জোহা খান জানান, অফিস থেকে প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য আমি ও আমার স্ত্রী কাওরান বাজার থেকে নিউভিশন বাসে উঠি। একেবারে পেছনের আগের সিটে ফাঁকা জায়গা থাকায় সেখানেই বসি। বাসের হেলপারকে আগে থেকেই বলে রাখি যেন আমাদেরকে প্রেসক্লাবের সামনে নামিয়ে দেয়। কিন্তু তারা আমার কথায় কোনো কান না দিয়ে নিজেদের ইচ্ছা মতো গাড়ি চালায় এবং অতিরিক্ত যাত্রী গাড়িতে উঠাতে থাকে।

তিনি জানান, প্রেসক্লাবের সামনে আসলে আমরা নামতে চাইলে তারা আমাদের নামিয়ে না দিয়ে আমার ওপর চড়াও হয়। এ বিষয়ে ড্রাইভারকে বলতে গেলে তারা লাঠিসোটা নিয়ে আমাকে মারধর করে এবং পল্টন মোড়ে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এরপর আমি সামনে গিয়ে বাসটি আটকানোর চেষ্টা করলে তারা আমার শরীরের ওপর দিয়ে বাস উঠিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে।

প্রথম আলোর এ সাংবাদিক আরও জানান, আমার মুখের ওপর তারা ঘুষি মারলে দাঁত ভেঙ্গে যায় এবং অনবরত রক্ত বের হতে থাকে। এ সময় তিনি লাঠির আঘাতে পায়ের গোড়ালিতেও আঘাত পান বলে জানান।

কমল জোহা খান বলেন, এরপর আমি আশেপাশে কোনো সার্জেন্ট আছে কিনা খোঁজ করলে একজন সার্জেন্টকে পাই এবং তাকে নিয়ে আসি। সেই সার্জেন্ট সিভিল ড্রেসে থাকায় প্রথমে তার ওপরও চড়াও হয় ওই বাসের চালক ও হেলপার।

তিনি জানান, এরপর ওই বাসের কাগজ জব্দ করে তাদেরকে নিয়ে থানায় নিয়ে আটক করে পুলিশ। এ বিষয়ে আমি বাদি হয়ে তাদের নামে থানায় মামলা করেছি।

জনশক্তি/এস

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
error: Content is protected !!